পরীক্ষা, ভর্তি−অনলাইনেই

কদিন পরই বিসিএস পরীক্ষা। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষাও দূরে নয়। প্রস্তুতি কেমন হলো, মূল পরীক্ষার আগে তা যাচাই করে নিতে মডেল টেস্টের বিকল্প নেই। পরীক্ষার আগে-পরে নিবন্ধনসংশ্লিষ্ট ঝক্কিও কম নয়। তবে ইন্টারনেটের কল্যাণে এসব ঝামেলা এড়িয়ে যাওয়া যায়। কিভাবে? জানাচ্ছেন হাবিবুর রহমান তারেক
বিসিএস পরীক্ষার আগে
বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) অধীনে বিভিন্ন পরীক্ষায় অংশ নেন লাখ লাখ প্রার্থী। আবেদনকারীর সুবিধার্থে বিসিএস পরীক্ষাসহ নন-ক্যাডার, ডিপার্টমেন্টাল, সিনিয়র স্কেল পরীক্ষার সব তথ্য ও আবেদন প্রক্রিয়া যুক্ত করা হয়েছে www.bpsc.gov.bd সাইটে। বিসিএস পরীক্ষার ‘টেস্ট’সহ দরকারি অনেক তথ্য পাওয়া যাবেww w.bpsc.gov.bd/২০১১/index.php/bcs-document লিংকে।
এ পরীক্ষার আগে দরকার প্রস্তুতি। এর জন্য কাজে আসবে www.bcstest.com সাইট। বিসিএস পরীক্ষার বাংলাদেশ, আর্ন্তজাতিক, ভূগোল, বাংলা সাহিত্য, সাধারণ বিজ্ঞান, গণিত, শব্দ সংক্ষেপণ বিষয়ের ওপর আলোচনা এবং প্রস্তুতির সবই আছে সাইটটিতে।
ডিপ্লোমা ভর্তিতে ডিজিটাল পদ্ধতি
গত বছর দেশের ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ‘ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং’য়ে ভর্তি পরীক্ষায় অর্ধ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন। এ প্রক্রিয়ায় ভোগান্তি কমাতে গত বছর ‘অনলাইন ভর্তি পদ্ধতি’ চালু করা হয়। খাতা দেখা ও ফল তৈরি করা হয় ওএমআর মেশিনে। এসএসসি পাস করা অনেক শিক্ষার্থী এ বছরও ‘ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং’-এ ভর্তি হবেন। অনলাইনে ভর্তির সুযোগ থাকছে এবারও। www.bcstest.com ওয়েবসাইট থেকে ভর্তির আবেদন, প্রবেশপত্র সংগ্রহ এবং এসএমএসের মাধ্যমে ফরমের টাকা জমা দেওয়া যাবে। ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন প্রক্রিয়ার কাজও হবে ওয়েবে। এতে সময় ও পরিবহন খরচ বাঁচবে। নিশ্চিত হবে স্বচ্ছতা।
সম্প্রতি ভর্তি তথ্য-ফলাফলসহ শিক্ষার্থীদের অনলাইনে বিভিন্ন সেবা দিতে চালু করা হয়েছে ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ওয়েবসাইট ফঢ়র.মড়া.নফ। এ সাইটের ডেভেলপার শহিদুল ইসলাম হীরা বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অনলাইনে সবর্োচ্চ সেবা দিতে প্রয়োজনীয় সব কিছুই যুক্ত করা হয়েছে সাইটটিতে’।
অনলাইনে প্রশ্নপত্র, সাজেশন
বিগত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও সাজেশন পেতে লাইব্রেরি কিংবা কোচিং সেন্টারে দৌড়ঝাঁপের আর দরকার নেই। সমাধান আছে www.studentcarebd.com-এ। এর ‘অনুরোধ’ বিভাগটি আপাতত চালু আছে। শিক্ষার্থীরা www.studentcarebd.com/request.html লিংকের নির্ধারিত ফরমে এসএসসি, এইচএসসি, ব্যাচেলর (পাস ও সম্মান) ছাড়াও সরকারি নিয়োগ পরীক্ষার বিগত বছরের প্রশ্নপত্র কিংবা সাজেশনের অনুরোধ করলেই ফিরতি ই-মেইলে তা পেয়ে যাবেন। তবে প্রার্থীর নাম, ই-মেইল ঠিকানা, কাঙ্ক্ষিত পরীক্ষার বিবরণ, সাল উল্লেখ করতে হবে ফরমে।
শিক্ষক নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় প্রযুক্তি
শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার আবেদন ফরম সংগ্রহ থেকে শুরু করে ‘প্রবেশপত্র’, ‘আসনবিন্যাস’ এবং ‘ফলাফল’ নির্দিষ্ট সময়ে অনলাইনে পাবেন প্রার্থীরা। গত বছরের নভেম্বরে এ পদ্ধতি চালু করে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। প্রার্থীরা www.ntrca.gov.bd সাইট থেকে তাঁদের প্রবেশপত্র নামিয়ে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা যায়, বর্তমানে যেসব জটিলতা আছে তা আরো সহজ করতে প্রযুক্তি সমর্থিত আরো কিছু সেবা চালুর প্রক্রিয়ার কাজ চলছে।
স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য চ্যাম্পসটুয়েন্টিওয়ান
স্কুলের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে মূল্যায়ন পরীক্ষার সুযোগ করে দিতে চালু করা হয়েছে পযধসঢ়ং২১.পড়স। এটি মূলত ই-লার্নিং ওয়েব পোর্টাল। সাইটটি সাজানো হয়েছে তৃতীয় থেকে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের উপযোগী করে। গণিত এবং বিজ্ঞানের অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্নের পাশাপাশি ‘টার্ম’ অনুযায়ী প্রশ্নপত্র যুক্ত করা হয়েছে। এ দুটি বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন শুধু নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা। অনলাইনে যাচাই কিংবা মূল্যায়ন পরীক্ষায় অংশ নিতে নিবন্ধিত ব্যবহারকারীরা লগইন করে ক্লিক করতে হবে ‘টেস্ট প্যাকেজ’ অংশে। এ ছাড়া পাবেন ‘টেস্ট রিপোর্টস’, ‘পারফরম্যান্স’ এবং ‘আনসার অ্যানালাইসিস’ অংশ।
মূল্যায়ন পরীক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা ‘গল্পগুচ্ছ’, ‘জোকস’, ‘বিলিভ ইট অর নট’, ‘সুডোকু’র মতো মজার মজার বিভাগে ঘুরে আসতে পারবেন। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের মেধাযুদ্ধ প্রতিযোগিতা ‘ব্রেইন ব্রেটস’-এ অংশ নেওয়ার তথ্যও পাবেন এ সাইটে।
নিজেদের পছন্দের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিতে পারবেন testbd.com সাইটে। এ সাইটে শিক্ষার্থীরা কিংবা শিক্ষকরা নিজেদের পছন্দমতো প্রশ্নপত্র (উত্তরসহ) সাজিয়ে নিতে পারবেন, সেই সঙ্গে পরীক্ষার সময়ও নির্ধারণ করা যাবে। পরে এ প্রশ্নপত্রে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা।
ঘরে বসেই এইচএসসিতে ভর্তি
এসএসসির ফলাফল তো হলো, এবার ভর্তির পালা। স্বভাবতই শিক্ষার্থীদের চোখ থাকে সেরা প্রতিষ্ঠানের দিকে। লাখো শিক্ষার্থীর চাপের কথা মাথায় রেখে সহজ সমাধানের পথ বাতলে দিয়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় কলেজ ‘রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ’। গত বছর এইচএসসিতে ভর্তির পুরো কার্যক্রম ওয়েবসাইটের ww(w.rajukcollege.org) মাধ্যমে সম্পন্ন করে তারা। এবারও একই পদ্ধতিতে করা হবে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির উপাধ্যক্ষ মো. তালিবুল ইসলাম সরকার। তিনি বলেন, ‘প্রথমে আবেদনের যোগ্যতার বিস্তারিতসহ ভর্তি বিজ্ঞতি ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়, এরপর আগ্রহীরা অনলাইনের নির্দিষ্ট ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের ফি পাঠাতে হবে মোবাইলের মাধ্যমে। আবেদন করার পর নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকাও প্রকাশ করা হয় ওয়েবে। এরপর ভর্তিপ্রক্রিয়াও অনলাইনে। বিস্তারিত নির্দেশনা কলেজটির সাইটেই পাওয়া যাবে।’ তিনি আরো বলেন, ভর্তির ক্ষেত্রে পরীক্ষা পদ্ধতির ওপর সরকারি বিধিনিষেধ থাকায় আবেদনকারীদের নির্বাচিত করা হয় প্রাপ্ত জিপিএর ভিত্তিতে। যেসব শিক্ষার্থীর অনলাইন সম্পর্কে ধারণা নেই তাঁরা তো আবেদনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত থাকবে_এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেসব শিক্ষার্থী অনলাইনে আবেদন করতে পারবে না তাঁরা সশরীরে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ কলেজের অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব অপারেটর আবেদনকারীর হয়ে অনলাইনে আবেদন করে দেবেন। তবে এ ক্ষেত্রে বাড়তি ২০ টাকা ফি দিতে হবে। রাজউক মডেল কলেজের আদলে প্রথম সারির আরো কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবার অনলাইনে ভর্তির পদ্ধতি চালু করতে পারে বলেও কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে।
ইংরেজি মাধ্যমের নিবন্ধনও ওয়েবে
বাংলাদেশের ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর এডেঙ্লে এবং ‘ক্যামব্রিজ ইন্টারন্যাশনাল এঙ্াম’-এর অধীনে জিসিই ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেলের পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। এসব শিক্ষার্থীও পরীক্ষার আগে নিবন্ধনের সুযোগ পাচ্ছেন অনলাইনে। www.britishcouncil.org/bangladesh-exams-gce.htm লিংকে শিক্ষার্থীরা নিবন্ধনের সুযোগ ছাড়াও পরীক্ষার নিয়মকানুন, সিলেবাস, পরীক্ষার স্থান ও সময়ের তথ্য পাবেন।
তথ্যপ্রযুক্তির পরীক্ষায়
তথ্যপ্রযুক্তির প্রশিক্ষণ ও পরীক্ষার খরচ অনেক। অনেকে অনলাইনে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের ওপর ধারণা নিচ্ছেন এবং দক্ষ হচ্ছেন। কিন্তু সার্টিফিকেট নেই তাঁদের। এর সমাধান আছে অনলাইনে। ওয়েব ডিজাইন, ই-কমার্স, নেটওয়ার্কিং অ্যান্ড ইন্টারনেট এবং প্রোগ্রামিং বিষয়ে যাঁদের দক্ষতা আছে তাঁরা অনলাইনে বিনা মূল্যে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে লুফে নিতে পারেন একটি সার্টিফিকেট। পরীক্ষা ও সার্টিফিকেট প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি হচ্ছে ‘ফরনিঙ্’। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন- http://fornix-education.7mb.net ।
সূত্র: কালের কণ্ঠ । টেকবিশ্ব । ১৮ মে, ২০১১
 

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.