ইংরেজিতে দক্ষতার সনদ আইইএলটিএস

হাবিবুর রহমান তারেক

 ইন্টারন্যাশনাল ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ টেস্টিং সিস্টেম বা আইইএলটিএস হচ্ছে ইংরেজি ভাষায় দক্ষতার সনদ, যা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয় তাদের বিদেশে উচ্চশিক্ষা কিংবা ইমিগ্রেশন ভিসার আবেদনের পূর্বশর্ত হিসেবে আইইএলটিএস পরীক্ষায় ভালো স্কোর থাকতে হয়। ১৯৮০ সালে স্বল্প পরিসরে কয়েকটি দেশে এই পরীক্ষা পদ্ধতিটি চালু হলেও বর্তমানে এর প্রসার ঘটেছে ১২০টিরও বেশি দেশে।

গ্রহণযোগ্যতা বিশ্বজুড়ে
ইউনিভার্সিটি অব ক্যামব্রিজ সূত্রে জানা যায়, ১৪ লাখের বেশি শিক্ষার্থী ও পেশাজীবী উচ্চশিক্ষা ও চাকরির লক্ষ্যে প্রতিবছর আইইএলটিএস পরীক্ষায় অংশ নেন। ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের এক্সামিনেশনস ডাইরেক্টর পিটার এশটন জানান, উচ্চশিক্ষা ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, যুক্তরাজ্যসহ অনেক দেশে ইমিগ্রেশনের ক্ষেত্রে আইইএলটিএস স্কোর থাকা বাধ্যতামূলক। গ্রহণযোগ্যতার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিকভাবে টোফেলের চেয়ে অনেক এগিয়ে আইইএলটিএস।
যেসব বিষয় থাকছে
আইইএলটিএস পরীক্ষাপদ্ধতি দুই ধরনের, ‘একাডেমিক’ ও ‘জেনারেল ট্রেনিং’। উচ্চশিক্ষায় বিদেশে যেতে ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীদের সাধারণত ‘একাডেমিক আইইএলটিএস’ পরীক্ষায় অংশ নিতে হয়। আর অন্য সবার জন্য জেনারেল ট্রেনিং। পরীক্ষার্থী নিজের প্রয়োজন অনুযায়ী নির্বাচন করবেন কোন পরীক্ষা তিনি দেবেন। একাডেমিক ও জেনারেল ট্রেনিং_উভয় পরীক্ষায় লিসনিং, স্পিকিং, রিডিং এবং রাইটিং নামের চারটি পৃথক বিষয় আছে। প্রাতিষ্ঠানিক ভাষায় এ বিষয়গুলোকে ‘মডিউল’ বলা হয়।
পরীক্ষার্থী লিসনিং মডিউলের জন্য ৩০ মিনিট এবং স্পিকিং মডিউলের সর্বোচ্চ ১৪ মিনিট সময় পাবেন। রিডিং এবং রাইটিং এই উভয় মডিউলের ক্ষেত্রে সময় পাবেন ৬০ মিনিট করে। পরীক্ষাপত্রের মান নির্ধারণ করা হয় ব্যান্ড স্কোর হিসেবে। আইইএলটিএস পরীক্ষার প্রতিটি মডিউলের সর্বোচ্চ ব্যান্ড স্কোর ৯ দশমিক ০।
পরীক্ষা পরিচালনা
ইউনিভার্সিটি অব ক্যামব্রিজ, ব্রিটিশ কাউন্সিল ও আইডিপি অস্ট্রেলিয়া যৌথভাবে পরিচালনা করে আইইএলটিএস পরীক্ষা। এ পরীক্ষার নীতিনির্ধারক (অ্যাওয়ার্ডিং বডি) ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় হলেও বিশ্বব্যাপী পরীক্ষা পরিচালনা ও শিক্ষার্থীদের কাছে তথ্য পেঁৗছে দেওয়ার মূল ভূমিকা পালন করছে ব্রিটিশ কাউন্সিল ও আইডিপি অস্ট্রেলিয়া। সারা বিশ্বে একই প্রশ্নপত্র ও অভিন্ন নিয়মে পরিচালিত হয় আইইএলটিএস পরীক্ষা।
ব্রিটিশ কাউন্সিলের হেড অব এক্সামস্ মার্কেটিং এম আই মেহরাব জানান, ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফায়েড এক্সামিনার দ্বারা পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও উত্তরপত্র মূল্যায়ন করা হয়।
কিছু ভুল ধারণা
অনেকেই মনে করেন আইইএলটিএস অনেক কঠিন একটি পরীক্ষা। আসলে এটি ভুল ধারণা। ব্রিটিশ কাউন্সিল সূত্রে জানা যায়, ইংরেজিতে মোটামুটি দক্ষ হয়েও এ পরীক্ষায় ভালো স্কোর সম্ভব। যদিও যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া কিংবা পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে যেভাবে আইইএলটিএস পরীক্ষা পরিচালিত হয় বাংলাদেশেও এর ব্যতিক্রম নয়।
পরীক্ষার আগের প্রস্তুতি
আইইএলটিএসে পরীক্ষার আগের প্রস্তুতি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। প্রস্তুতিতে সহায়তার ক্ষেত্রে একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান ব্রিটিশ কাউন্সিল। ব্রিটিশ কাউন্সিলে দুই মাস মেয়াদি প্রস্তুতিমূলক কোর্সে খরচ পড়বে ১১ হাজার ৫০০ টাকা। অন্যসব কোচিং সেন্টারে তিন মাস মেয়াদি কোর্সের জন্য খরচ পড়বে পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকা।
ব্রিটিশ কাউন্সিল পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে চালু করেছে আইইএলটিএসবিষয়ক একদিনের কর্মশালা।
দিনব্যাপী কর্মশালাটি ঢাকা সেন্টারে প্রতি মাসে দুবার অনুষ্ঠিত হয়। এর নিবন্ধন ফি ৫০০ টাকা।
আইইএলটিএসের প্রস্তুতি নিতে কিংবা কোর্সের ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করুন-
* ব্রিটিশ কাউন্সিল, ৫ ফুলার রোড, ঢাকা।
* ব্রিটিশ কাউন্সিল টিচিং সেন্টার, ৭৫৪/বি,
সাতমসজিদ রোড, ধানমণ্ডি, ঢাকা।
* ব্রিটিশ কাউন্সিল (চট্টগ্রাম), ৭৭/এ পূর্ব নাসিরাবাদ,
চট্টগ্রাম।
* ব্রিটিশ কাউন্সিল (সিলেট), আল-হামরাহ্ শপিং সিটি (লেভেল-৬), জিন্দাবাজার, সিলেট।
* সাইফুর’স, ৬৯/১ সুবাস্তু টাওয়ার (২য় তলা),
গ্রিন রোড, পান্থপথ, ঢাকা।
হ গেটওয়ে, ৩/৩ ব্লক-এ, লালমাটিয়া, ঢাকা।
হ মেনটরস, ১৬৬/১ মিরপুর রোড, কলাবাগান, ঢাকা।
রেজিস্ট্রেশন করবেন যেভাবে
পরীক্ষার আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে ব্রিটিশ কাউন্সিলের ঢাকা, চট্টগ্রাম অথবা সিলেট শাখায়। তাদের অনুমোদিত ‘রেজিস্ট্রেশন পয়েন্ট’ সাইফুর’স, গেটওয়ে ও মেনটরস থেকেও রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।
এম আই মেহরাব জানান, পরীক্ষার তিন থেকে চার সপ্তাহ আগেই রেজিস্ট্রেশন করা ভালো। পরীক্ষার্থীরা অনলাইনেও রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। ফি পরিশোধ-সংক্রান্ত দিকনির্দেশনা অনলাইনেই পাওয়া যাবে।
ব্রিটিশ কাউন্সিলের অফিশিয়াল সাইটের (www.britishcouncil.org/bangladesh) ‘রেজিস্ট্রার ফর আইইএলটিএস’ থেকে ‘রেজিস্ট্রার অনলাইন’ ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য এন্ট্রির মাধ্যমে পরীক্ষার্থীরা সহজেই রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশন করতে খরচ পড়বে ১০ হাজার টাকা।
উল্লেখ্য, রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীর পাসপোর্ট থাকা আবশ্যক। বিস্তারিত তথ্য পেতে যোগাযোগ করুন- ব্রিটিশ কাউন্সিল, ৫ ফুলার রোড, ঢাকা, ফোন: ০২-৮৬১৮৯০৫।
পরীক্ষার সুযোগ বছরে ৩৬ বার
ব্রিটিশ কাউন্সিলের তত্ত্বাবধানে প্রতি মাসে তিনবার করে বছরে ৩৬ বার আইইএলটিএস পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আগে, কোনো পরীক্ষার্থী আশানুরূপ না পেলে পরে পরীক্ষা দিতে হতো প্রথম পরীক্ষার অন্তত তিন মাস পর। এখন নিয়মিত ও অনিয়মিত পরীক্ষার্থীরা কাঙ্ক্ষিত স্কোর পাওয়ার আগ পর্যন্ত যতবার খুশি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।
ফলাফল অনলাইনে
সাধারণত আইইএলটিএস ফল প্রকাশিত হয় পরীক্ষার ১৩ দিন পর। ব্রিটিশ কাউন্সিল থেকে ফলাফল সংগ্রহ করা যাবে। এ ছাড়া http://ielts-results.britishcouncil.org /forms/frmMain.aspx লিংক থেকে ক্যানডিডেট নম্বর, পাসপোর্ট নম্বর, জন্মতারিখ, পরীক্ষা প্রদানের তারিখ এন্ট্রি করে সহজেই জেনে নিতে পারেন আইইএলটিএস পরীক্ষায় পাওয়া নম্বর। আরো জানতে চোখ রাখুন আইইএলটিএসের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে (www.ielts.org)।
সূত্র: কালের কণ্ঠ । সিলেবাসে নেই । ১১-৫-২০১০

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • মন্তব্য করুন

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.