ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তির এখনই সময়

দেশের ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে বিভিন্ন বিষয়ে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে পরিচালিত এসব পলিটেকনিক ছাড়াও বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পরিচালিত ইন্সটিটিউট সমূহেও ৪ বছর মেয়াদী ‘ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং’ এবং ‘ডিপ্লোমা ইন জুট টেকনোলজি’ কোর্সে ২০১১-২০১২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকা্শ করা হয়েছে। এসএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দের বিষয়ে পড়াশোনা করতে চাইলে সিদ্ধান্ত নিতে হবে এখনই। তবে তার আগে জেনে নিন ভর্তি তথ্য ও আগ্রহের বিষয়ের খুঁটিনাটি।
ভর্তি তথ্য
এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় পাস করা শিক্ষার্থীরাই ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। বেসরকারি পলিটেকনিকে পাশের সন মূখ্য না হলেও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে আবেদন করতে হলে শিক্ষার্থীকে অবশ্যই ২০০৯ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে এসএসসি পাশ হতে হবে ।  এসএসসিতে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে অন্তত জিপিএ ৩.০০সহ মোট জিপএ ৩.৫০ পেলেই কেবল ভর্তির জন্য আবেদনের সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা । ভর্তির আরও তথ্য জানা যাবে ‘ভর্তি বিজ্ঞপ্তি’ ও নির্দেশিকায়। অনলাইনে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি পাবেন এ লিংকে–http://123.49.52.26/first_shift/statics/general_guideline ।  আবেদন ফরম পাওয়া যাবে অনলাইনে (www.techedu.gov.bd)। টেক্সটাইলে ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য পাবেন এ দুটি ওয়েবে–www.dtec.edu.bd, www.titangail.gov.bd ।
আবেদন অনলাইনেই
শিক্ষার্থীরা ভর্তি আবেদন করতে পারবেন অনলাইনেই। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (www.techedu.gov.bd) ওপরে ডানদিকে ‌’অনলাইন অ্যাডমিশন’ অংশে ক্লিক করে নির্ধারিত ফরমে দরকারি সব অংশ পূরন করে ‘সাবমিট’ অংশে ক্লিক করেই আবেদন পর্ব শেষ করা যাবে। তবে সাবমিট করার পর ওয়েব পেজে প্রদর্শিত ফিরতি বার্তাটি প্রিন্ট করে নিতে ভুলবেন না। এখানে একটি নম্বর দেয়া হবে।যার মাধ্যমে আপনার আবেদনটি মূল্যায়ন করা হবে। এরপরের ধাপটি হচ্ছে ফি (২০০ টাকা) পরিশোধের, অবশ্যই তা দিতে হবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই। শিক্ষার্থীরা ৬ জুলাই পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পাবেন। সঠিক নিয়মে আবদেন করার পর প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে ১০ জুলাই থেকে ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে। লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৫ জুলাই সকাল ১০টায়।
এসএমএসে ‘ফি’ জমা দিবেন যেভাবে
‘ফি’ জমা দিতে হবে টেলিটকের প্রিপেইড সংযোগ থেকে। এর জন্য প্রথমে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে DTE লিখে, স্পেস দিয়ে শিক্ষাবোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর লিখে, স্পেস দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে , স্পেস দিয়ে এসএসসি পাশের সাল লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে। উদাহরণঃ DTE <Space>XXX<Space>XXXXXX<Space>XXXX
এখানে XXX এর জায়গায় আবেদনকারীর নিজের বোর্ডের নাম লিখতে হবে, ঢাকা বোর্ডের ক্ষেত্রে (DHA), সিলেট এর ক্ষেত্রে (SYL), বরিশালের ক্ষেত্রে (BAR), চট্টগ্রাম এর ক্ষেত্রে (CHI), কুমিল্লা এর ক্ষেত্রে (COM), দিনাজপুর এর ক্ষেত্রে (DIN), যশোর এর ক্ষেত্রে (JES), রাজশাহী এর ক্ষেত্রে (RAJ), মাদ্রাসা এর ক্ষেত্রে (MAD), কারিগরী এর ক্ষেত্রে (BTE) লিখতে হবে। এখানে XXXXXX এর জায়গায় আবেদনকারীর নিজের এস এস সি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখতে হবে । XXXX এর জায়গায় আবেদনকারীর এসএসসি পাশের সাল লিখতে হবে।
এসএমএস পাঠানোর পর আবেদনকারী যোগ্য বিবেচিত হলে ফিরতি এসএমএসে একটি পিন (PIN) নম্বরসহ প্রার্থীর নাম, পিতার নাম এবং পরীক্ষার ফি হিসেবে ২০০ টাকা কেটে রাখার তথ্য জানিয়ে সম্মতি চাওয়া হবে। সম্মতি দেয়ার জন্য এসএমএস পাঠাতে হবে এভাবে–
DTE <Space>YES<Space>PIN<Space>Mobile number
সঠিকভাবে পাঠানোর পর ফিরতি এসএমএসে প্রার্থীকে একটি ‘মানি রিসিপ্ট নম্বর’ দেয়া হবে।
দেশের সব পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের তালিকা ও আসন সংখ্যার তথ্য পাবেন এ লিংকে–http://123.49.52.26/first_shift/statics/institute_department_info ।
গ্রন্থনা: হাবিবুর রহমান তারেক

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • মন্তব্য করুন

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.