২০১৯ সালের এইচএসসি ও সমমানের পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশ

২০১৯ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার পুনঃনিরীক্ষণের ফল ১৬ আগস্ট প্রকাশিত হয়েছে।

পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফলে- ৯ শিক্ষা বোর্ডে ফেল থেকে পাস করেছে ৫৫৫ জন। নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬৬ জন।
ঢাকা বোর্ডে নতুন করে ১৪৫ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। আর ফেল থেকে পাস করেছে ২৮৯ জন। ১ হাজার ৫৮৬ জনের আগের ফল পরিবর্তন হয়েছে।

রাজশাহী বোর্ডের ৬৬ পরীক্ষার্থী ফেল থেকে পাস করেছে। নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৪ জন।

যশোর বোর্ডের ২৩ পরীক্ষার্থী ফেল থেকে পাস করেছে। নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ জন।

কুমিল্লা বোর্ডের ৬২ জন ফেল থেকে পাস করেছে। নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ জন। সিলেট বোর্ডের ১৬ পরীক্ষার্থী ফেল থেকে পাস করেছে। ফল পুনঃনিরীক্ষণে নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন।

দিনাজপুর বোর্ডের ২৯ জন ফেল থেকে পাস করেছে। নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন। ১৩৬ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণে ৩৬৫ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে। এর মধ্যে ফেল থেকে পাস করেছে ৪৭ জন এবং নতুন করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ জন।

বরিশাল ব্যুরো জানায়, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণে ৮ জন ফেল থেকে পাস করেছে। নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ জন।

মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের ১৫ শিক্ষার্থী ফেল থেকে পাস করেছে। ফল পুনঃনিরীক্ষণে নতুন জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ জন। পুনঃনিরীক্ষণ শেষে গ্রেড পরিবর্তন হয়েছে ৬৩ মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর।

সব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটেই স্ব স্ব বোর্ডের পুনঃনিরীক্ষণ ফলাফল পাওয়া যাবে।

উল্লেখ্য, ১৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। এর পরদিন থেকেই এক সপ্তাহের জন্য পুনঃনিরীক্ষণ আবেদনের সুযোগ দেওয়া হয়। ২০১৯ সালে ১৩ লাখ ৩৬ হাজার ৬২৯ শিক্ষার্থী এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা দিয়েছে। এর মধ্যে ৯ লাখ ৮৮ হাজার ১৭২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। পাসের হার ছিল ৭৩.৯৩ শতাংশ।

আরো দেখুন

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.