১৩৯৪ জনকে নিয়োগ দেবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন অধিদপ্তর

সহকারী পরিচালক, ফিল্ড অফিসার, ওয়াচার কনস্টেবলসহ ১৭ ধরনের পদে ১৩৯৪ জনকে নিয়োগ দেবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন একটি অধিদপ্তর। আবেদন করতে হবে অনলাইনে ২৬ আগস্টের মধ্যে। এসংক্রান্ত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২৫ জুলাই যুগান্তরের ১৭ নম্বর পৃষ্ঠায় প্রকাশিত হয়েছে।

কোন পদে কতজন :
সহকারী পরিচালক পদে ১৭৭ জন, ফিল্ড অফিসার পদে ১০৭ জন, কম্পিউটার টেকনিশিয়ান পদে ১ জন, রেডিও টেকনিশিয়ান পদে ২ জন, অ্যাকাউন্ট্যান্ট-কাম-ক্যাশিয়ার পদে ১ জন, সাঁটলিপি-কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে ৮ জন, কম্পিউটার অপারেটর পদে ২ জন, জুনিয়র ফিল্ড অফিসার পদে ১২২ জন, সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে ৫ জন, অ্যাসিস্ট্যান্ট লাইব্রেরিয়ান পদে ১ জন, ওয়্যারলেস অপারেটর পদে ১০৩ জন, অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ১ জন, অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে ৯৬ জন, ল্যাবরেটরি অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ১ জন, ওয়াচার কনস্টেবল পদে ৬৮৯ জন, ডার্করুম অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ১ জন ও অফিস সহায়ক পদে ৭৭ জন লোক নিয়োগ দেওয়া হবে।

আবেদনের যোগ্যতা :
প্রথম শ্রেণির স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অথবা দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক (সম্মান)সহ কম্পিউটার চালনায় দক্ষতা থাকলে আবেদন করা যাবে সহকারী পরিচালক পদে। এ ক্ষেত্রে দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতকোত্তর ডিগ্রি বা চার বছর মেয়াদি স্নাতক ডিগ্রিতে দ্বিতীয় শ্রেণি নিয়ে উত্তীর্ণ হলেও চলবে।
ফিল্ড অফিসার পদে আবেদন করতে হলে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রিসহ কম্পিউটার চালনায় পারদর্শী হতে হবে। পুরুষ ও মহিলাদের ক্ষেত্রে যথাক্রমে কমপক্ষে ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি ও ৫ ফুট উচ্চতা থাকতে হবে। সঙ্গে বুকের মাপ উভয়ের ক্ষেত্রেই ৩০-৩২ ইঞ্চি (সম্প্রসারিত) থাকতে হবে। কম্পিউটার টেকনিশিয়ান ও রেডিও টেকনিশিয়ান পদে আবেদন করতে হলে উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণসহ আবেদনকৃত পদসংশ্লিষ্ট দুই বছরের ট্রেড কোর্স সার্টিফিকেট থাকতে হবে। সঙ্গে কম্পিউটার চালনায় দক্ষ হতে হবে। অ্যাকাউন্ট্যান্ট-কাম ক্যাশিয়ার পদের জন্য বাণিজ্য বিভাগ থেকে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক ডিগ্রিসহ কম্পিউটার চালনায় দক্ষ হতে হবে। সাঁটলিপি-কাম-কম্পিউটার অপারেটর ও সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে আবেদনের জন্য কমপক্ষে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। সঙ্গে সাঁটলিপিতে প্রতি মিনিটে যথাক্রমে বাংলায় ৫০ ও ৪৫ এবং ইংরেজিতে ৮০ ও ৭০ সর্বনিম্ন শব্দ লিখতে হবে। উভয় পদেই কম্পিউটারের ওয়ার্ড প্রসেসিং, ডাটা এন্ট্রি টাইপিংয়ে সর্বনিম্ন গতি থাকতে হবে যথাক্রমে বাংলায় ২৫ ও ইংরেজিতে ৩০ শব্দ। তবে সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম- কম্পিউটার অপারেটর পদে শুধু ঢাকা, জামালপুর, চট্টগ্রাম ও সিলেট জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। জুনিয়র ফিল্ড অফিসার ও ওয়াচার কনস্টেবল পদে আবেদন করতে হলে উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। সঙ্গে কম্পিউটার পরিচালনায় দক্ষ হতে হবে। উভয় পদেই পুরুষ ও মহিলাদের উচ্চতা কমপক্ষে যথাক্রমে ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি ও ৫ ফুট হতে হবে। বুকের মাপ যথাক্রমে ৩০-৩২ ইঞ্চি (সম্প্রসারিত) হতে হবে। জুনিয়র ফিল্ড অফিসার পদে বাগেরহাট ছাড়া সব জেলার প্রার্থীরাই আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অপারেটর পদে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে। কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরে প্রতি মিনিটে বাংলায় ২৫ ও ইংরেজিতে ৩০ শব্দ থাকতে হবে। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট পদে ‘স্ট্যান্ডার্ড অ্যাপটিটিউড টেস্টে’ উত্তীর্ণ হতে হবে। অ্যাসিস্ট্যান্ট লাইব্রেরিয়ান পদে গ্রন্থাগার বিষয়ে ডিপ্লোমা ডিগ্রি থাকতে হবে। সঙ্গে কম্পিউটার চালনায় দক্ষতা থাকা জরুরি। ওয়্যারলেস অপারেটর পদে আবেদন করতে হলে উচ্চ মাধ্যামিক স্কুল সার্টিফিকেট বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। সঙ্গে বৈদ্যুতিক ও বেতার যন্ত্রপাতি এবং বেতারযন্ত্রে যোগাযোগবিষয়ক প্রাথমিক জ্ঞান থাকতে হবে। মোর্স টেলিগ্রাফিতে প্রতি মিনিটে ২০টি শব্দ গ্রহণ ও প্রেরণে সিদ্ধহস্ত হতে হবে। এ ছাড়া কম্পিউটার পরিচালনায় দক্ষতা থাকতে হবে। তবে এ পদে টেলিযোগাযোগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও অভিজ্ঞ সাবেক সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিলযোগ্য হবে। এ পদে নরসিংদী, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, ফেনী, লক্ষ্মীপুর, কুষ্টিয়া ও পিরোজপুর জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট ও অফিস সহকারী-কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে আবেদন করতে হলে উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে। এ ছাড়া অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদের প্রার্থীদের কম্পিউটার ব্যবহারসংক্রান্ত বিষয় জানতে হবে। ওয়ার্ড প্রসেসিং, ডাটা এন্ট্রি ও টাইপিংয়ে সর্বনিম্ন গতি বাংলা ও ইংরেজিতে ২০ শব্দ করে থাকতে হবে। এ পদে মানিকগঞ্জ, নেত্রকোনা, বি-বাড়িয়া, লালমনিরহাট, ঝালকাঠি ও বরগুনা জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। ল্যাবরেটরি অ্যাসিস্ট্যান্ট ও ডার্ক অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফেকেট পদে উত্তীর্ণ হতে হবে। ল্যাবরেটরি অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ফটোকেমিক্যাল, ছবি মুদ্রণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে অভিজ্ঞ হতে হবে। ডার্ক অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ফটোগ্রাফিক ল্যাবরেটরির ডার্করুমে কমপক্ষে তিন বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ছবি ও মুদ্রণ সম্পর্কে বাস্তব জ্ঞান থাকতে হবে। সঙ্গে উভয় পদেই কম্পিউটার পরিচালনায় দক্ষ হতে হবে। অফিস সহায়ক পদে অষ্টম শ্রেণি পাস ও শারীরিক যোগ্যতাসম্পন্ন হতে হবে। এ পদে মানিকগঞ্জ, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা, বান্দরবান, বি-বাড়িয়া, খাগড়াছড়ি, ফেনী, রাঙামাটি, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নড়াইল, ভোলা, ঝালকাঠি, বরগুনা ও পটুয়াখালীর প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। তবে এতিম কোটার প্রার্থীরা সব জেলা থেকেই আবেদন করতে পারবেন। ২৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে প্রার্থীর বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের জন্য বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩২ বছর ধরা হবে।

আবেদন যেভাবে :
আবেদন করা যাবে অনলাইনে। আবেদন করতে http://nsi.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর ও পাসপোর্ট সাইজের ছবি আপলোড করে নির্দেশনামতো সব ধরনের তথ্য প্রদান করে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে।

চূড়ান্ত সাবমিট করার আগে ভালোভাবে প্রিভিউ দেখে নিতে হবে। চূড়ান্ত সাবমিট হওয়ার পর ইউজার আইডি, ছবি ও স্বাক্ষরযুক্ত একটি অ্যাপ্লিক্যান্ট কপি দেওয়া হবে। এই ইউজার আইডি ব্যবহার করে টেলিটক প্রিপেইড নম্বরের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি প্রদান করতে হবে। পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তির ১ নম্বর পদের জন্য ৭০০ টাকা, ২ নম্বর পদের জন্য ৫০০ টাকা। ৩ থেকে ১৪ নম্বর পদ পর্যন্ত ১০০ টাকা এবং ১৫ থেকে ১৭ নম্বর ৫০ টাকা। রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষার ফি দিতে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে NSI User ID ওউ লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। ফিরতি মেসেজ পাওয়ার পর NSI yes Pin লিখে আবারও ১৬২২২-তে পাঠালে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা প্রদান করা হয়ে যাবে।

বেতন ও সুযোগ-সুবিধা :
চূড়ান্ত নিয়োগপ্রাপ্ত প্রার্থীরা সরকারের সব ধরনের ভাতাসহ বেতন পাবেন ‘জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫’ অনুযায়ী। সহকারী পরিচালক পদে বেতন দেওয়া হবে ২২০০০-৫৩০৬০ টাকা স্কেলে, ফিল্ড অফিসার পদে ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে, কম্পিউটার টেকনিশিয়ান ও রেডিও টেকনিশিয়ান পদে ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা স্কেলে, অ্যাকাউন্ট্যান্ট-কাম ক্যাশিয়ার, সাঁটলিপিকার-কাম-কম্পিউটার অপারেটর ও কম্পিউটার অপারেটর পদে ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা স্কেলে, জুনিয়র ফিল্ড অফিসার, সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম কম্পিউটার অপারেটর ও অ্যাসিস্ট্যান্ট লাইব্রেরিয়ান পদে ১০২০০-২৪৬৮০ টাকা স্কেলে, ওয়্যারলেস অপারেটর পদে ৯৭০০-২৩৪৯০ টাকা স্কেলে, অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট, অফিস সহাকরী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ও ল্যাবরেটরি অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা স্কেলে, ওয়াচার কনস্টেবল পদে ৯০০০-২১৮০০ টাকা স্কেলে, ডার্করুম অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে ৮৮০০-২১৩১০ টাকা স্কেলে ও অফিস সহায়ক পদে ৮২৫০-২০০১০ টাকা স্কেলে বেতন প্রদান করা হবে।

♦ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পাওয়া যাবে এই লিংকে : nsi.teletalk.com.bd/doc/ad201901.pdf

পরীক্ষাপদ্ধতি ও সিলেবাস :
পরীক্ষাপদ্ধতি, সিলেবাস কিংবা মানবণ্টন সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তিতে কোনো কিছু উল্লেখ করা হয়নি।

তবে গতবারের নিয়োগ পরীক্ষার আলোকে এখানে সম্ভাব্য ধারণা দেওয়া হলো—

♦ পদভেদে পরীক্ষাপদ্ধতি ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। যেমন—পদভেদে প্রিলি ও লিখিত দুটি পরীক্ষাই দেওয়া লাগতে পারে। আবার কোনো কোনো পদের ক্ষেত্রে ব্যাবহারিক পরীক্ষাও নেওয়া হতে পারে।

♦ নির্দিষ্ট কোনো সিলেবাস নেই, তবে সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) নন-ক্যাডার পর্যায়ের প্রিলির সিলেবাস ফলো করতে পারেন।

♦ গতবার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাস দেড়েকের মধ্যেই প্রাথমিক বাছাই পরীক্ষা (প্রিলি) অনুষ্ঠিত হয়।

♦ জব সলিউশন দেখে প্রস্তুতি নিতে পারেন।

প্রিলির সম্ভাব্য মানবণ্টন (মোট ১০০ নম্বর) :
বাংলা-১০,
ইংরেজি-১০,
অঙ্ক-১৫,
সাধারণ জ্ঞান-৩৫ (বাংলাদেশ বিষয়াবলি-২০, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি-১৫),
বিজ্ঞান/দৈনন্দিন বিজ্ঞান-১০,
কম্পিউটার ও তথ্য-প্রযুক্তি-১০,
বুদ্ধিমত্তা যাচাই (আইকিউ)-১০।

লিখিত পরীক্ষা :
লিখিত পরীক্ষায় গণিত (বিসিএস টাইপের অঙ্ক), টীকা, বিজ্ঞান, সাধারণ জ্ঞান, সমসাময়িক জাতীয়-আন্তর্জাতিক ঘটনা, সমস্যা, অপরাধ, গোয়েন্দা এবং নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট প্রশ্ন থাকতে পারে।

সূত্র : কালের কণ্ঠ । চাকরি আছে । ৩১ জুলাই ২০১৯

আরো দেখুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.