ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫১তম সমাবর্তন ৬ অক্টোবর

রাত পোহালেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫১তম সমাবর্তন অনুষ্ঠান। শিক্ষার্থীদের জীবনের একটি সেরা ও স্মৃতিবহ এই সমাবর্তনের সব প্রস্তুতি শেষ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রেজিস্ট্রেশনকৃত গ্রাজুয়েটদের কস্টিউম ও দাওয়াতপত্র বিতরণ হয়েছে। আজ (শুক্রবার) হবে গ্রাজুয়েটদের উপস্থিতিতে শেষ প্রস্তুতি। আগামীকাল (শনিবার)  ৬ অক্টোবর ২০১৮ তারিখ সকাল ১১.৫৫টায় চ্যান্সেলরের শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হবে বহুপ্রত্যাশিত এই সমাবর্তন। সব কিছু সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

গতকাল বৃহস্পতিবার ৪ অক্টোবর দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

শনিবার (৬ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে এ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। সমাবর্তন বক্তা থাকবেন জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ঢাবি উপাচার্য বলেন, আমরা সমাবর্তনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে রূপ দিতে চাই। এটি হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যালেন্ডার ইভেন্ট। আমরা মধ্য নভেম্বর থেকে মধ্য জানুয়ারির মধ্যে প্রতিবছর সমাবর্তন আয়োজন করার চেষ্টা করব।
সমাবর্তন উপলক্ষে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালেয়ের প্রক্টরিয়াল বডি সব ধরনের নিরাপত্তা নিয়েছে। আমি সবাইকে অনুরোধ করব ক্যাম্পাস এলাকায় যানবাহন চলাচলে যেন গ্র্যাজুয়েটদের অসুবিধা না হয়। সমাবর্তন শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিন।

সমাবর্তনের জন্য ২১ হাজার ১১১ জন গ্র্যাজুয়েট রেজিস্ট্রেশন করেছেন। অনুষ্ঠানে কৃতি শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে ৯৬টি স্বর্ণপদক, ৮১ জনকে পিএইচডি এবং ২৭ জনকে এমফিল ডিগ্রি দেয়া হবে। অন্যদিকে অধিভূক্ত সাত কলেজের ৪ হাজার শিক্ষার্থী এতে অংশ নিবে।

– মো. আবদুল অদুদ

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • মন্তব্য করুন

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.