১ম ও ২য় শ্রেণির চাকরিতে কোটা না রাখতে কমিটির সুপারিশ

দেশের সরকারি চাকরির ১ম ও ২য় শ্রেণির পদে অর্থাৎ ৯ম থেকে ১৩তম গ্রেড পর্যন্ত কোনো কোটা না রেখে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের সুপারিশ করেছে কোটা পর্যালোচনায় গঠিত কমিটি।

সরকারি এই কমিটির নেতৃত্বে আছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮) মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর তিনি গণমাধ্যমকে জানান, কোটা নিয়ে কমিটির পর্যালোচনা রিপোর্ট (সুপারিশ) প্রধানমন্ত্রীর কাছে আজ জমা দেওয়া হয়েছে । কমিটির এই সুপারিশ প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক অনুমোদন পেলে মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হবে। মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেলে আগামী মাসেই (অক্টোবর) প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করা হতে পারে।

৯ম থেকে ১৩তম গ্রেড পর্যন্ত কোনো কোটা না রাখার সুপারিশ করা হলেও ত্রয়োদশ থেকে বিশতম গ্রেডে নিয়োগের ক্ষেত্রে আগের নিয়মই বহাল থাকবে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে সরকারি চাকরিতে নিয়োগে ৫৬ শতাংশ পদ বিভিন্ন কোটার জন্য সংরক্ষিত; এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য ৩০ শতাংশ, নারী ১০ শতাংশ, জেলা ১০ শতাংশ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ৫ শতাংশ, প্রতিবন্ধী ১ শতাংশ।

এদিকে, সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়স ৩০ বছর থেকে বাড়ানোর ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • মন্তব্য করুন

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.