মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের বিড়ম্বনা নিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বক্তব্য

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের বিড়ম্বনা নিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বক্তব্য জানানো হয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে বিরম্বনায় পড়েছে বলে অভিযোগ করেছিল।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আজ (বৃহস্পতিবার) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়-
বাংলা এবং ইংরেজি বিষয়ে পূর্বে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের ১০০ করে নম্বর ছিলো। অথচ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় শর্ত হলো ২০০ নম্বরের। অতিসম্প্রতি বাংলা ও ইংরেজিতে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের ২০০ নম্বরের ব্যবস্থা প্রচলন হওয়া এবং এ দুই বিষয়ে কোড পরিবর্তন হলেও মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে তা অবহিত করেনি। অধিকন্তু সম্প্রতি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড তাদের শিক্ষার্থীদের জন্য দুটি নতুন বিষয় যথাঃ পৌরনীতি ও অর্থনীতি প্রচলন করেছে, যার বিষয় কোডও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে জানানো হয়নি। এমনকি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগের সাথে মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও সিস্টেম এনালিস্টসহ আন্তঃ বোর্ডের সমন্ময় সভায়ও মাদ্রাসা বোর্ডের প্রতিনিধিরা বিষয়টি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে অবহিত করেননি। উল্লেখিত কারণে ভর্তিচ্ছু মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইনে প্রবেশে বিঘ্ন ঘটেছে। তবে সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে বিষয়টি এখন সংশোধিত।

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • Leave A Reply

    Your email address will not be published.

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.