সরকারি স্কুলে ভর্তি : আবেদন অনলাইনে, ফি বিকাশে

রাজধানীর ৩২টি সরকারি স্কুলে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া মঙ্গলবার (২ ডিসেম্বর ২০১৪) রাত ১২টা থেকে শুরু হয়েছে। ছুটির দিনসহ আগামী ১২ ডিসেম্বর (শুক্রবার) রাত ১২টা পর্যন্ত এই আবেদন করা যাবে। এবার অভিভাবকরা দিন-রাত ২৪ ঘণ্টাই ঘরে বসেই অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।
শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বিবেচিত হলে এসএমএসের মাধ্যমে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রথম শ্রেণিতে লটারির ফল ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও জানা যাবে। ঘরে বসেই ভর্তির সব প্রক্রিয়া শেষ করে ভর্তির দিন স্কুলে গেলেই চলবে। তবে অন্যান্য শ্রেণিতে অনলাইনে আবেদনের পর ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে শিক্ষার্থীদের।
মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ভর্তির আবেদন সহজতর করতেই অধিদপ্তর থেকে একটি সেন্ট্রাল ওয়েবসাইট খোলা হয়েছে। www.dshe.gsa.edu.bd ওয়েবসাইটে গিয়েই রাজধানীর যেকোনো সরকারি স্কুলে ভর্তির আবেদন করা যাবে।
ওয়েবসাইটে ঢোকার আগে ০১৮৫১২৮৭৯১৫ (বিকাশ মেনু>পেমেন্ট>মার্চেন্ট ওয়ালেট নাম্বার) নম্বরে ১৫০ টাকা বিকাশ করতে হবে। গ্রামীণ, বাংলালিংক, রবি ও এয়ারটেল নম্বর থেকে এই বিকাশ করা যাবে। বিকাশ শেষে ফিরতি এসএমএসে প্রাপ্ত আইডি সংরক্ষণ করতে হবে। এরপর ওয়েবসাইটে গিয়ে ‘নিউ অ্যাপ্লিকেশনে’ ক্লিক করতে হবে। ফরম পূরণের সময় বিকাশের আইডি নম্বর লিখতে হবে। ‘১৫০ ও ১৭০’ পিক্সেলের সর্বোচ্চ ৫০ কেবি সাইজের রঙিন ছবি যুক্ত করতে হবে। ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করে সাবমিট করলেই একটি প্রবেশপত্র আসবে। তা ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করতে হবে।
৩২টি স্কুলকে তিনটি গুচ্ছে ভাগ করে ওয়েবসাইটে দেওয়া আছে। শিক্ষার্থীরা একটি গুচ্ছ থেকে শুধু একটিই আবেদন করতে পারবেন।
সরকারি স্কুলের ভর্তি নীতিমালা-২০১৪ থেকে জানা যায়, প্রথম শ্রেণিতে আবেদনকারীদের বয়স ১ জানুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত পাঁচ থেকে সাত বছরের মধ্যে হতে হবে। এই শ্রেণিতে শুধু লটারির মাধ্যমে ভর্তি করা হবে। এ ছাড়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণিতে ৫০ নম্বরের এক ঘণ্টার ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। চতুর্থ থেকে অষ্টম শ্রেণিতে ১০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে নবম শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণিতে বাংলা ১৫, ইংরেজি ১৫ ও গণিতে ২০ নম্বর করে মোট ৫০ নম্বরের এক ঘণ্টার এবং অন্যান্য শ্রেণিতে বাংলা ৩০, ইংরেজি ৩০ ও গণিতে ৪০ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার পরীক্ষা নেওয়া হবে। গত বছর ফরমের মূল্য ১০০ টাকা থাকলেও এবার তা বাড়িয়ে ১৫০ টাকা করা হয়েছে, যা বিকাশের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। গত বছর সেশন ফি ৭০০ টাকা থাকলেও এবার তা বাড়িয়ে সর্বোচ্চ এক হাজার ৪৯৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
মাউশি সূত্র জানায়, রাজধানীর ৩২টি সরকারি স্কুলের মধ্যে ১৪টিতে প্রথম শ্রেণি রয়েছে। প্রথম শ্রেণির ভর্তি লটারি আগামী ২৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণির পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৭, ১৮ ও ২০ ডিসেম্বর। এই ৩২টি স্কুলে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত শূন্য আসনসংখ্যা এখনো নির্ধারণ করা হয়নি। বার্ষিক পরীক্ষা শেষ না হলে পুরোপুরিভাবে আসনসংখ্যা জানা যাবে না। তবে প্রায় ৯ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
জানা যায়, রাজধানীর গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুল, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, ধানমণ্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ হাই স্কুল, তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, নারিন্দা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, বাংলাবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাই স্কুল, মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, গণভবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলা নগর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও আজিমপুর গভমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজে প্রথম শ্রেণি রয়েছে। এসব স্কুলে প্রথম শ্রেণিতে আসনসংখ্যা রয়েছে প্রায় আড়াই হাজারের মতো।
অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সরকারি ৩২টি স্কুল থাকলেও তাদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে মাত্র কয়েকটি স্কুল। এর মধ্যে অন্যতম গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুল। এই স্কুলেই প্রথম শ্রেণিতে আবেদন পড়ে সবচেয়ে বেশি। স্কুল সূত্রে জানা গেছে, এবার এই স্কুলের প্রথম শ্রেণিতে ৩৬৪টি আসন রয়েছে।
মাউশির উপপরিচালক (মাধ্যমিক) এ কে মোস্তফা কামাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘প্রতিবছর অভিভাবকরা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ভোগান্তির শিকার হন। তাই ভর্তি-প্রক্রিয়া আধুনিক ও যুগোপযোগী করা হয়েছে। শিক্ষার্থী বা অভিভাবকরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। তবে অনলাইনে সঠিক তথ্য প্রদান না করলে লটারিতে টিকলেও পরে সেই শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে। আর মোবাইল নম্বরটিও সঠিক না দিলে আপডেট তথ্য থেকে বঞ্চিত হতে হবে।’
সূত্র : কালের কণ্ঠ

  • শিক্ষাবিষয়ক দরকারি তথ্য তাৎক্ষণিক পেতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন : www.facebook.com/EducationBarta
  • মন্তব্য করুন

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.