বিদেশে পড়াশোনা : নতুন ঠিকানা হংকং

হাবিবুর রহমান তারেক
যুক্তরাজ্যের প্রভাবশালী পত্রিকা ‘দ্য টাইমস’-এর সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হংকংয়ের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বিশ্বমানের। বিপুলসংখ্যক বিদেশি শিক্ষার্থীর পছন্দের জায়গা হিসেবে ইতিমধ্যে স্থান করে নিয়েছে হংকং।
বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদেরে বিদেশে পড়াশোনা বা উচ্চশিক্ষার ঠিকানা হতে পারে হংকং।
হংকংয়ে চীনা জনগোষ্ঠীই বেশি, তাই বলে শিক্ষার একমাত্র মাধ্যম মান্দারিন (চীন) নয়। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজির ভালোই চল আছে। পড়াশোনার খরচও খুব বেশি নয়। ভর্তিপূর্ব পরামর্শ ও প্রয়োজনীয় সব তথ্য পাবেন এ ওয়েব পোর্টালে-  http://studyinhongkong.edu.hk/eng । হংকংয়ে ভর্তির সুযোগ থাকে বছরে দুবার- জানুয়ারির মাঝামাঝি ও সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে। তা ছাড়া বৃত্তিপ্রাপ্তির মাধ্যমেও দেশটিতে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাবেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা। http://studyinhongkong.edu.hk/eng/01scholarships.jsp লিংক থেকে বৃত্তির বিস্তারিত জানা যাবে। আবেদন করতে পারবেন দুইভাবে- অনলাইনে অথবা ডাকযোগে। দ্রুত ভর্তিপ্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে ডাকযোগের চেয়ে অনলাইনে আবেদন করাই ভালো। তবে মনে রাখবেন, সেশন শুরু হওয়ার অন্তত দুই থেকে তিন মাস আগেই সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ ও আবেদনের কাজটি সেরে ফেলতে হবে। ভর্তি-ভিসা ও পড়াশোনা-সংক্রান্ত সব খরচের অঙ্ক নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি নূ্যনতম আইইএলটিএস স্কোর (৫.৫) আছে কি না দেখুন। যদিও অনেক কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে আইইএলটিএস থাকা আবশ্যক নয়। আবেদন যাচাই করে যোগ্য প্রার্থীদের ঠিকানায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পরবর্তী দিকনির্দেশনা সংবলিত কাগজপত্রসহ ‘অ্যাডমিশন লেটার’ বা ‘একসেপটেন্স লেটার’ পাঠায়। এর পরের ধাপেই ভিসা আবেদন করতে হয়। ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করতে হয় হংকং কনস্যুলেট অথবা চীনা দূতাবাসে। ঢাকার চীনা দূতাবাসের ঠিকানা- প্লট ২ ও ৪, দূতাবাস সড়ক, বারিধারা, ঢাকা। ভিসাপ্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে সাধারণত ছয় সপ্তাহ লাগে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানভেদে টিউশন ফি ও থাকা-খাওয়া বাবদ প্রতিবছর খরচ হবে ৫০ থেকে ৮০ হাজার হংকং ডলার। এক হংকং ডলার ১১ টাকার সমান। হংকংয়ে সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে- সিটি ইউনিভার্সিটি অব হংকং (www.cityu.edu.hk), হংকং ব্যাপটিস্ট ইউনিভার্সিটি (www.hkbu.edu.hk), লিংনান ইউনিভার্সিটি (www.ln.edu.hk), দ্য হংকং ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (www.ust.edu.hk), দ্য ইউনিভার্সিটি অব হংকং (www.hku.hk)।
সূত্র: কালের কণ্ঠ ।  ১৯ অক্টোবর ২০১০

আরো দেখুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.